রোহেনা আক্তার 

প্রকাশিত:
২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১২:০২ পিএম
আপডেট:
২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১২:০৩ পিএম


নিঃস্বার্থ ভালোবাসার নজির


নিঃস্বার্থ ভালোবাসার নজির

অনেকে শুধুই ভালোবাসা ভালোবাসা আর ভালোবাসি ভালোবাসি বলে চিৎকার করে গলা ফাটিয়ে ফেলে। কিন্তু কজনই-বা ভালোবাসার জন্য নিঃস্বার্থভাবে নিজেকে উৎসর্গ করতে পারে? প্রকৃত ভালোবাসা তো সেটাই যেখানে ফেরত পাওয়ার আশা না করে বিনিময়ে শুধু ভালোবেসে যায়। আর এর জন্য নিচের দুটি উদাহরণই যথেষ্ট।

এক
পাশাপাশি বাড়ি হওয়ায় দুজনেরই ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ ঘটে খুব সহজেই। সকালে-বিকালে ছেলে-মেয়ে দুজনারই কথা বলা, কেয়রিং, শেয়ারিং আর একদন্ড না দেখে থাকতে পারাটাই স্বাভাবিক। এমনটাই হয়েছিল ওদের দুজনের মধ্যে (অনিক আর লাবন্য) (ছদ্মনাম)। এমনকি পরিবারের সবাই বেড়াতে গেলেও ওরা যেত না। কারণ তারা একে অপরকে না দেখে থাকতে পারবে না। তাদের দুই পরিবার ছাড়াও গ্রামের সবাই জানে তাদের সম্পর্কের কথা। হঠাৎ করেই ছেলেটির বড়ভাই ইংল্যান্ড চলে গেল। সেই সুবাদে কাঁচা বাড়ি থেকে তাদের বাড়ি হয়ে যায় তিনতলা বিল্ডিং।বাড়ি করার সাথে গাড়িও হয় দুতিনটি। কাঁচা বাড়ি থেকে তারা উঠে তিনতলা বাড়িতে। কিন্তু কে জানতো, ছেলেটি তিনতলাতে উঠতে গিয়ে তার ভালোবাসাও মনের তিনতলাতে উঠে যাবে। মেয়েটির প্রতি এতটুকু ভালোবাসা অবশিষ্ট থাকল না।

ছেলেটি তার যোগ্য মতো কাউকে জীবনে জড়িয়ে নিল। কিন্তু মেয়েটি সেটা মেনে নিতে পারল না। অন্যদের মতো আত্মহত্যাও করল না। এমনকি ছেলেটিকে একবার জিজ্ঞেসও করল না কেন সে এমন করল। বাকিটা জীবন এমনই রয়ে গেল। কেউ বিয়ের কথা বললে মেয়েটি বলে, আমি হয়তো তার যোগ্য ছিলাম না তাই যোগ্য মতো কাউকে বেছে নিয়ে সে সময়ের কাজটি ঠিকই সময়মতো করেছে, কিন্তু সে তো আমার যোগ্য ছিল, আছে আর তাই এ জায়গা থেকে আমি তাকে সরাতে চাই না। আমিও যদি কাউকে বেছে নিই তাহলে আমিও তো তার মতো হয়ে যাব। এই কথাগুলোতেই বুঝা যায় নীরবে, নিভৃতে থেকে, মনের গহীনে একজনকে ভালোবেসে ভালোবাসা নামক অনুভূতিটাকে সযতনে লালন করার নামই ভালোবাসা। যদিও আপাত দৃষ্টিতে মনে হবে মেয়েটি ভালো কাজ করেনি তবুও এভাবেই দিনের পর দিন, যুগের পর যুগ ভালোবাসাকে রাখা যায় একান্তই নিজের করে।

দুই
সামনাসামনি দুজনার বাসা। তাই ছোট্ট বেলা থেকেই এক সাথে দুজনের বেড়ে ওঠা, লেখাপড়া। দিনরাত দুজনের এক সাথে চলাফেরা, বড় হওয়া। বড় হওয়ার সাথে সাথে বুঝতে পারল তারা একজন থেকে আরেকজন আলাদা থাকতে পারবে না। তবুও নিজেদের মাঝে রেখে দিল সেটা, কারণ তারা চাইছিল দুজনের পরিবারের মধ্যে যখন বিয়ের কথা উঠবে তখনই পরিবারে জানাবে। পড়ালেখা দুজনেরই শেষ পর্যায়ে। হঠাৎ ছেলেটি ফরেনে চলে যায়। তবে ছেলেটি কথা দিয়েছিল যে ফিরে এসে তারা স্বপ্নের ঘর বাঁধবে। বোকা মেয়েটি কিন্তু সে আশাতেই রয়ে গেল। প্রায় পাঁচ বছর পর ছেলেটি ফিরে আসল ঠিকই, তবে নিজেকে পুরোপুরি পরিবর্তন করে। এই পাঁচ বছরে মেয়েটিও প্রতিষ্ঠিত। সে একজন ব্যাংকার। ছেলেটির অপেক্ষায় তার ছোটো দুবোনকে বিয়ে দিয়েছে। এমনকি নিজেরও ডজনখানেক বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে। কিন্তু অপেক্ষা শেষে তার আশার গুড়ে বালি দেখল সে। কারণ ছেলেটি এখন বিদেশ ফেরত। তার এখন অনেক টাকা। তাই বড় ফ্যামিলি থেকে কাউকে বিয়ে করল। ছেলেটি স্বপ্ন সাজালো অন্যকে নিয়ে। কিন্তু মেয়েটির স্বপ্নে বাধা পড়ল। তাই বলে কী সে হেরে গেল?

সময়ের কাছে হেরে গিয়ে জীবনের কাছে জিতে গেছে সে। মেয়েটির ডায়রিতে লিখা ছিল--‘জীবনের ঊনত্রিশটা বসন্ত যদি তোমায় নিয়ে স্বপ্ন দেখে কাটাতে পারলাম তবে আরো ঊনত্রিশটা বসন্ত তোমায় নিয়ে দেখা সেই স্বপ্নগুলোকে প্রতিফলিদ করে কাটিয়ে দিতে পারব। তবু আমার ভালোবাসার কাছে আমি হেরে যাব না।’

হ্যাঁ। এটাই হলো ভালোবাসা। নিঃস্বার্থ ভালোবাসার এমন উদাহরণ অহরহ আমাদের সামনেই আছে। সত্য সবসময় একটু আড়ালেই থাকে কিনা তাই আমাদের চোখে সেগুলো পড়ে না। সচরাচর আমরা যেগুলোকে ভালোবাসা বলি সেগুলো আদৌ ভালোবাসা নয়। তাই ভালোবাসা ভালোবাসা বলে চিৎকার না করে নীরবে ভালোবেসেই যাওয়া উচিত। মনে রাখবেন, ভালোবাসা পাবার কিন্তু একটাই উপায়, আর তা হলো ফেরত পাওয়ার আশা না করে প্রতিদানে শুধু ভালোবেসে যাওয়া।
 


আপনার মতামত লিখুন :
মতামত এর আরও খবর

আরো পড়ুন
ডিবি পরিচয়ে মাদরাসাছাত্রকে গুম, তিনদিন ধরে মিলছে না কোনো খোঁজ

ডিবি পরিচয়ে মাদরাসাছাত্রকে গুম, তিনদিন ধরে মিলছে না কোনো খোঁজ

তিন দিন ধরে নিখোঁজ তরুণ এক মাদরাসাছাত্র। চরম উৎকণ্ঠা ও…

পুঁথির মতো সুন্দর ২০১৯ এ ৩য় সেরা বাংলাবিদ অয়ন চক্রবর্তী গল্প : অর্ক রায় সেতু

পুঁথির মতো সুন্দর ২০১৯ এ ৩য় সেরা বাংলাবিদ অয়ন চক্রবর্তী গল্প : অর্ক রায় সেতু

অয়ন চক্রবর্তী, গুরুগম্ভীর মানুষের তালিকায় পাঠকের কাছে তার নাম লিখলে…

অন্যকে ফাঁসাতে গিয়ে পরিবারের হাতেই খুন দিরাইয়ের শিশু তুহিন
পুলিশের ধারণা

অন্যকে ফাঁসাতে গিয়ে পরিবারের হাতেই খুন দিরাইয়ের শিশু তুহিন

সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে শিশু তুহিন আহমদ (৫)-কে বীভৎস কায়দায় হত্যাকে পারিবারিক…

জীবনটা গল্প হলেও পারতো- রিজন আহমেদ: জানাচ্ছেন অর্ক রায় সেতু

জীবনটা গল্প হলেও পারতো- রিজন আহমেদ: জানাচ্ছেন অর্ক রায় সেতু

আরজে রিজন, পুরো নাম রিজন আহমেদ একই সাথে তিনি এ…

‘কৃষ্ণের দশম অবতারে’র আশ্রমে মিলল ৫০০ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ

‘কৃষ্ণের দশম অবতারে’র আশ্রমে মিলল ৫০০ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ

নিজেকে কৃষ্ণের দশম অবতার হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন, কিন্তু একসময় ছিলেন…

বিকাল পাঁচটায় পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা
বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়

বিকাল পাঁচটায় পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী…

তুহিন হত্যার সঙ্গে তার বাবা’র সম্পৃক্তির কথা বিশ্বাস করতে পারছেন না তুহিনের মা

তুহিন হত্যার সঙ্গে তার বাবা’র সম্পৃক্তির কথা বিশ্বাস করতে পারছেন না তুহিনের মা

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলায় পাঁচ বছরের শিশু তুহিন হত্যাকাণ্ডে বাবা আব্দুল…

ভোলায় চার মুসল্লির শাহাদাতের ঘটনায় সিলেটে দফায় দফায় বিক্ষোভ

ভোলায় চার মুসল্লির শাহাদাতের ঘটনায় সিলেটে দফায় দফায় বিক্ষোভ

ভোলায় হিন্দু যুবক কর্তৃক ইসলাম ও নবিজি সাল্লাল্লাহু আলায়হি ওয়া…