রাগিব রব্বানি

প্রকাশিত:
১৮ জুন, ২০১৯ ০৫:১০ পিএম


বেফাকের অফিসিয়াল ওয়েব সাইটের দুর্দশা : দেখার কেউ নেই?


বেফাকের অফিসিয়াল ওয়েব সাইটের দুর্দশা : দেখার কেউ নেই?

বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ কওমি মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশের অফিসিয়াল ওয়েব সাইট wifaqbd.org-এর বেহাল দশা দৃষ্টিকটু হয়ে দাঁড়িয়েছে। নিয়মিত হালনাগাদ না থাকা ও তথ্যবিভ্রাটের কারণে ভিজিটরদের পড়তে হয় নিদারুণ বিভ্রান্তিতে।

তাছাড়া ধর্মীয় অঙ্গনের জাতীয় একটি শিক্ষাবোর্ডের অফিসিয়াল ওয়েব সাইট হিসেবে বোর্ডের পরিচিতি, প্রতিষ্ঠার প্রেক্ষাপট, প্রতিষ্ঠা, পথচলা, কার্যক্রম, সাফল্য ইত্যাদি নানা বিষয় স্বাভাবিকভাবে সাইটটিতে থাকার কথা থাকলেও নূন্যতম পরিচিতিটুকুও পাওয়া যায় না পুরো সাইট ঘেঁটে। নেই বেফাকের কেন্দ্রীয় কিংবা আঞ্চলিক কমিটির তালিকাও।

বেফাক অফিসের কার্যক্রম যে কয়টি বিভাগে ভাগ করে করা হয়, সাইটে সব কয়টি বিভাগের তালিকা থাকলেও তালিকা আপডেট করা হয়নি কয়েক বছরেও। প্রশাসন বিভাগের তালিকা ঘেঁটে দেখা গেছে বেফাকের বর্তমান মহাপরিচালক, যিনি কয়েক বছর আগে সহকারী মহাপরিচালক ছিলেন, তাঁর নাম এখনও সহকারী মহাপরিচালক হিসেবেই আছে। তাছাড়া বিভাগওয়ারী কর্মকর্তা-কর্মচারীর সংখ্যা প্রায় শ খানেক হলেও সাইটে সাকুল্যে ২০ থেকে ২৫ জনের নাম দেওয়া আছে। এরমধ্যে এমন বেশ কয়েকজন আছেন যাঁরা দীর্ঘ দিন হলো বেফাকের চাকরি থেকে ইস্তফা দিয়েছেন।

পাশের হার নামে একটা ক্যাটগরি আছে সাইটে, সেখানে ঢুকলে পাওয়া যায় আরও হাস্যকর ও বিভ্রান্তিমূলক তথ্য। ইবতিদাইয়াহ জামাতের মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা দেখানো হয়েছে ৬ লক্ষ ৫৪ হাজার ৬ শো ৫৭ জন। তার মধ্য থেকে মুমতাজ পরীক্ষার্থীর সংখ্যা দেখানো হয়েছে সমপরিমাণে আর জায়্যিদ জিদ্দানে উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীর সংখ্যা দেখানো হয়েছে ৪ কোটি ৫৬ লক্ষ ৬৫ হাজার ৪ শো ৪১ জন!

তাছাড়া যে কয়টি মারহালায় বেফাক পরীক্ষা নেয় সবকয়টি মারহালাও উল্লেখ নেই এই পাতাটিতে।

২০১৫ সালে বেফাকের সাবেক অফিসিয়াল ওয়েব সাইট befaqbd.com রিনিউ না করাবার কারণে মাত্র ৬ হাজার টাকার (৬৯ডলার) বিনিময়ে এর ডোমেইন নিলামে বিক্রি করে দিয়েছিল হোস্টিং কোম্পানি। তারপর খোলা হয় বর্তমান ওয়েব সাইটটি। সাইট নির্মাণের সময় ডেভলপার যে তথ্যগুলো আপ করেছিল নিজের মনমতো এবং কোনো ধরনের যাচাই-বাছাই ছাড়াই, ৪-৫ বছর পর সেগুলো এখনও থেকে গেছে। বেসিক তথ্যগুলো সংযোজন করে নতুনভাবে হালনাগাদ করার ফুরসত মেলেনি বেফাকের।

বেফাকের মতো জাতীয় এবং বৃহৎ একটা শিক্ষাবোর্ডের অফিসিয়াল ওয়েব সাইটের এই বেহাল দশা ওলামায়ে কেরাম ও কওমি মাদরসাশিক্ষার্থীদের জন্য লজ্জাজনক এবং হতাশাকর বলে মনে করছে সচেতন মহল।

সচেতন মহলের প্রশ্ন, মোটা অংকের বেতনে নিয়োগপ্রাপ্ত বেফাকের আইটি কর্মকর্তা বেফাকের অফিসিয়াল ওয়েব সাইটটিই হালনাগাদ রাখতে পারেন না, তাহলে তাঁকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে কেন?

এ ব্যাপারে ফাতেহ টোয়েন্টিফোর থেকে যোগাযোগ করা হয় দীর্ঘদিন ধরে বেফাকের আইটি কর্মকর্তার দায়িত্বে থাকা মাওলানা ফরহাদ হাসানের সঙ্গে। বেফাকের ওয়েব সাইট এবং আইটি বিষয়ক যাবতীয় বিষয়াবলি তাঁর দায়িত্বে থাকলেও তিনি ওয়েব সাইটের এই বেহাল দশার দায় চাপান বেফাকের প্রশাসনিক বডির ওপর।

মাওলানা ফরহাদ জানান, আইটি বিভাগে তিনি ছাড়া আর কোনো লোক না থাকার কারণে তাঁর একারপক্ষে সবগুলো দায়িত্ব আঞ্জাম দেওয়া কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে। ব্যাপারটা তিনি বারবার ঊর্ধ্বতন মহলকে জানিয়ে আসলেও এ পর্যন্ত তাঁর কোনো সহকারী নিয়োগ দেওয়া হয়নি।

কিন্তু অফিসিয়াল ওয়েব সাইটের মতো একটা গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় তিন-চার বছরেও কি তিনি বেফাকের বেসিক তথ্যগুলো হালনাগাদ করবার সময় পাননি, নিদেনপক্ষে বিভ্রান্তিগুলো তো দূর করা যেত—এমন প্রশ্নের কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি মাওলানা ফরহাদ হাসান।

মাওলানা ফরহাদ হাসানের কথার ভিত্তিতে বেফাকের মহাপরিচালক অধ্যাপক মাওলানা যোবায়ের আহমদ চৌধুরীর সঙ্গে কথা বলে বোঝা গেল ওয়েব সাইটের বেহাল দশা নিয়ে তিনি পরিপূর্ণ ওয়াকিবহাল নন। তবে আইটি বিভাগে জনবলের প্রয়োজনীয়তা এবং সাইটের বেহাল দশার দায় স্বীকার করে তিনি জানান আগামী মাসেই বেফাকের অফিসিয়াল ওয়েব সাইট প্রয়োজনীয় তথ্যাবলি সংযোজনপূর্বক আপডেট করা হবে।

সচেতন মহলের দাবি, বেফাক যেহেতু কওমি মাদরাসা শিক্ষাধারার সবচেয়ে বড় এবং জাতীয় পর্যায়ের বোর্ড, অতএব বোর্ডের অফিসিয়াল ওয়েব সাইটটাও যেন সেই মানের হয়। একজন ভিজিটর সাইটে প্রবেশ করলে বেফাক সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য যেন সহজেই পেয়ে যায়।


আপনার মতামত লিখুন :
বিশেষ প্রতিবেদন এর আরও খবর

আরো পড়ুন
শাহজালাল বিমানবন্দরে লাগেজ কাটার সময় ধরা খেল ৪ কর্মী

শাহজালাল বিমানবন্দরে লাগেজ কাটার সময় ধরা খেল ৪ কর্মী

অ্যারাবিয়ার একটি বিমান থেকে লাগেজ কেটে মালামাল চুরির সময় চারজনকে…

শিশুদের প্রতি যৌন নির্যাতনের সাজা মৃত্যুদণ্ড করতে যাচ্ছে ভারত

শিশুদের প্রতি যৌন নির্যাতনের সাজা মৃত্যুদণ্ড করতে যাচ্ছে ভারত

শিশুদের প্রতি যৌন নির্যাতন রুখতে কড়া পদক্ষেপ নিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয়…

সেনা কবরস্থানে এরশাদের দাফন আগামীকাল

সেনা কবরস্থানে এরশাদের দাফন আগামীকাল

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা হুসেইন মুহম্মদের জানাজা…

আগের তুলনায় সীমান্তে হত্যা অনেকটা কমেছে
আগের তুলনায় সীমান্তে হত্যা অনেকটা কমেছে

আগের তুলনায় সীমান্তে হত্যা অনেকটা কমেছে

আগের তুলনায় সীমান্তে হত্যা অনেকটা কমে এসেছে বলে দাবি করেছেন…

টিকটক ভিডিও বানানোর জন্য সুরমা নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ কিশোর, ৪৮ ঘন্টা পর মিলল লাশ

টিকটক ভিডিও বানানোর জন্য সুরমা নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ কিশোর, ৪৮ ঘন্টা পর মিলল লাশ

সাম্প্রতিক সময়ে ভাইরাল হওয়া জনপ্রিয় গান ‘তরে ভুলে যাওয়ার লাগি…

ধর্ষণ রুখতে কঠোর আইন প্রণয়নের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

ধর্ষণ রুখতে কঠোর আইন প্রণয়নের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

ধর্ষণের বিরুদ্ধে কঠোর আইন প্রণয়ন করে অপরাধীদের কঠোর শাস্তি প্রদানের…

সিলেট দিন দুপুরে ছিনতাই গোলাপগঞ্জে টাকাসহ আটক ৩

সিলেট দিন দুপুরে ছিনতাই গোলাপগঞ্জে টাকাসহ আটক ৩

সিলেটের শাহপরাণ থেকে টাকা ছিনতাই করে পালিয়ে যাওয়ার সময় ধাওয়া…

‘পদ্মা সেতুর জন্য মাথা লাগবে’ গুজবে আটক ১

‘পদ্মা সেতুর জন্য মাথা লাগবে’ গুজবে আটক ১

ছেলে ধরা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস ও ম্যাসেঞ্জারের…