আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত:
০১ জুন, ২০১৯ ০৭:০৭ পিএম
আপডেট:
০১ জুন, ২০১৯ ০৭:০৯ পিএম


ফ্রান্সে মা-মেয়ে অসুস্থ,বায়ু দূষণজনিত অসুস্থতার জন্য রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে মামলা


ফ্রান্সে মা-মেয়ে অসুস্থ,বায়ু দূষণজনিত অসুস্থতার জন্য রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে মামলা

অবিশ্বাস্য একটি মামলায় ফ্রান্সের এক মা ও মেয়ে তাদের শারীরিক অসুস্থতার জন্য দায়ী করেছে বায়ু দূষণকে৷ প্যারিসের একটি আদালতে বর্তমানে চলছে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে দাখিল হওয়া মামলাটি৷

বাতাসের মানের অবনতির কারণে বর্তমান বিশ্বে বাড়ছে নানা ধরনের রোগের প্রকোপ৷ কিন্তু দায়ী করবেন কাকে?

সম্প্রতি বায়ু দূষণজনিত অসুস্থতার জন্য রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে একটি মামলা প্যারিসের আদালতে উঠেছে৷ মামলাটি করেছেন ফ্রান্সের এক মা ও মেয়ে৷ বায়ু দূষণকে ঠেকাতে পর্যাপ্ত পদক্ষেপ না নেওয়ার ফলে তাঁদের নিশ্বাসের নানা সমস্যা দেখা দিয়েছে বলে অভিযোগ৷ 

৫২ বছর বয়েসি মা বর্তমানে অসুস্থতার ফলে কর্মবিরতিতে৷ তার ১৬ বছর বয়েসি মেয়ে ভুগছে হাঁপানিতে৷ ডাক্তারের পরামর্শে প্যারিস ছেড়ে অর্লিন্স শহরে থাকতে শুরু করেছেন তাঁরা৷ ফলে, চিকিৎসা ও অন্যান্য ক্ষতিপূরণ হিসাবে রাষ্ট্রের কাছে ১৬০,০০০ ইউরো দাবি করেছেন৷

এমন মামলা অবশ্য আগেও হয়েছে৷ রেস্পায়ার নামের একটি বেসরকারি সংস্থা ফ্রান্সের প্রায় ৫০জনকে বেশ কিছুদিন ধরে এমন মামলায় আইনি সহায়তা প্রদান করছে, যাতে তাঁরা রাষ্ট্রকে এ বিষয়ে চাপে রাখতে পারেন ও নীতিগত বদল আনতে পারেন৷

কিন্তু আদালতে শুনানি পর্যায়ে পৌঁছানো এটিই প্রথম মামলা৷

বায়ু দূষণের ফলে কমিশনের চাপে ফ্রান্স

পাবলিক হেলথ ফ্রান্স এজেন্সি'র মতে, প্রতি বছরে ফ্রান্সে আনুমানিক ৪৮,০০০জন বায়ু দূষণজনিত রোগের কারণে মারা যান৷

সমস্যার মোকাবিলা করতে ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে বাড়ন্ত শীত ও স্মগের পরিস্থিতিতে রাষ্ট্রের পক্ষে বসানো হয় যানবাহন চলাচলের ওপর কড়াকড়ি৷

এর আগে, বায়ু দূষণ প্রতিরোধে ১৯৯৭, ২০১৪ ও ২০১৫ সালে এমন ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল৷

২০১৮ সালের মে মাসে ইউরোপিয়ান কমিশন ফ্রান্সসহ পাঁচটি দেশের বিরুদ্ধে ইউরোপিয়ান কোর্ট অফ জাস্টিসে মামলা করে৷

দীর্ঘ ১২ বছর ধরে কমিশনের পক্ষে একের পর এক সতর্কবার্তা পাঠানোর পরেও বাতাসের মানোন্নয়ন বিষয়ে ফ্রান্স কর্তৃপক্ষ ছিল নিষ্ক্রিয়৷ এরপরই কমিশন সিদ্ধান্ত নেয় মামলা করার৷

উল্লেখ্য, মা-মেয়ের এই মামলার মতো আরো তিনটি মামলার শুনানিপর্ব শুরু হবে চলতি বছরের জুন মাসে৷


আপনার মতামত লিখুন :
আন্তর্জাতিক এর আরও খবর

আরো পড়ুন
বদলে যাচ্ছে কওমি মাদরাসার পাঠ্যপুস্তকের মান ও ধরণ
হস্তলিপি থেকে কম্পিউটার কম্পোজ

বদলে যাচ্ছে কওমি মাদরাসার পাঠ্যপুস্তকের মান ও ধরণ

কওমি মাদরাসার সিলেবাসভুক্ত আরবি-উর্দু-ফারসি কিতাবগুলো অদ্ভুত এক ফন্টে লেখা। ডিজিটাল…

বহুমুখী সমস্যায় জর্জরিত ক্যান্সার-চিকিৎসা-সেবা
ব্যয় ও দুর্ভোগে দিশেহারা ভুক্তভোগীরা

বহুমুখী সমস্যায় জর্জরিত ক্যান্সার-চিকিৎসা-সেবা

ক্যান্সার রোগটা কেবল মরণব্যাধিই না, একই সঙ্গে পুরো একটা পরিবারকে…

বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

আজ শনিবার সকালে বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলার চরহোগলা গ্রামে ফখরুল হাওলাদার…

শিশু হাফেজ ছাত্রদের নিয়ে কি ব্যবসা চলছে?

শিশু হাফেজ ছাত্রদের নিয়ে কি ব্যবসা চলছে?

বিভিন্ন আরব ও মুসলিম রাষ্ট্রে অনেকগুলো দেশের অংশগ্রহণে প্রতিবছর অনুষ্ঠিত…

বাহুবলে দ্বিগাম্বর ছড়ায় অবৈধভাবে বালু উত্তোলন,আদালতে মামলা

বাহুবলে দ্বিগাম্বর ছড়ায় অবৈধভাবে বালু উত্তোলন,আদালতে মামলা

হবিগঞ্জের বাহুবলে দিগাম্বর ছড়ায় অবৈধ ভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে প্রতিনিয়ত…

নবীগঞ্জে মানসিক প্রতিবন্ধী ছাকিব নিখোঁজ

নবীগঞ্জে মানসিক প্রতিবন্ধী ছাকিব নিখোঁজ

হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার ১৩নং পানিউমদা ইউনিয়নের বড়চর গ্রামের মোঃ…

মালয়েশিয়ার অবৈদের ধরার জন্য, কঠোর পদক্ষেপ নিচ্ছে প্রশাসন

মালয়েশিয়ার অবৈদের ধরার জন্য, কঠোর পদক্ষেপ নিচ্ছে প্রশাসন

মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সে দেশে থাকা অবৈধ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে একটি…

পাঠাও বাইক সার্ভিস সম্পর্কে কাস্টমার যা বললেন

পাঠাও বাইক সার্ভিস সম্পর্কে কাস্টমার যা বললেন

‘উবার' বা ‘পাঠাও'-এর মতো রাইড শেয়ারিং সম্পর্কে অনেক পাঠক তাদের…