টাইম টিউন ডেস্ক
প্রকাশিত:
১৩ মে, ২০১৯ ০৯:২৯ পিএম
আপডেট:
১৩ মে, ২০১৯ ০৯:৩৪ পিএম


ফরমালিন: ভুল, সবই ভুল!


ফরমালিন: ভুল, সবই ভুল!

বাংলাদেশে ৫ বছর আগে ফরমালিনের বিরুদ্ধে ‘জিহাদ' ঘোষণা করেছিল আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী৷ নষ্ট করা হয়েছিল শত শত মন ফল৷ কিন্তু এখন বিজ্ঞানীরা বলছেন, ফল-মূল, শাক-সবজি সংরক্ষণে ফরমালিনের কোনো ভূমিকা নেই৷ মাছের বেলায়ও তাই৷

২০১৪ সালে যখন আমসহ আরো অনেক গ্রীষ্মকালীন ফলের ভরা মৌসুম, তখন ঢাকাসহ সারাদেশে জন স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর ফরমালিন-বিরোধী অভিযানের কথা অনেকেই হয়তো ভোলেননি৷ ঢাকায় এই অভিযান পরিচালনা করেছিল ঢাকা মট্রোপলিটন পুলিশ৷ যোগ দিয়েছিল মোবাইল কোর্টসহ সরকারের আরো অনেক সংস্থা৷ ঢাকার বাইরেও সারাদেশে একইভাবে অভিযান পরিচালনা করা হয়৷ শত শত মন আম বিনষ্ট করা হয়৷ বিনষ্ট করা হয় লিচু, তরমুজসহ  আরো অনেক মৌসুমী ফল৷ মাছের বাজার আর শাক-সবজির কাঁচা বাজারেও চলে এই অভিযান৷ ঢাকার প্রবেশ পথগুলোতে চেকপোস্ট বসিয়ে ফলের ট্রাক থামিয়েও অভিযান চালানো হয়৷ আর ফরমালিন মাপার যন্ত্র দিয়ে তখন প্রায় সব ফলেই পাওয় যায় উচ্চ মাত্রার ক্ষতিকর ফরমালিন৷ লাখ লাখ টাকা জরিমানা গুনতে হয় ব্যবসায়ীদের৷ ফলের বাজার, মাছের বাজার শূন্য হয়ে যায়৷ পরের বছরও একইভাবে চলে অভিযান৷

২০১৩ সালে খাদ্যে ফরমালিন ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয় বাংলাদেশে৷ একই সাথে খাদ্য সংরক্ষণে যে কোনো অননুমোদিত রাসায়নিক প্রয়োগের অপরাধে পাঁচ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড এবং ২০ লাখ টাকা জরিমানার বিধান রেখে আইন তৈরি হয়৷ আর ২০১৫ সালে সরকার  ফরমালিন নিয়ন্ত্রণ আইন করে এর ব্যবহার ও আমদানি পুরোপুরি নিষিদ্ধ করে দেয়৷

কিন্তু বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের পরিচালক কৃষিবিজ্ঞানী ড. মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, ‘‘ওই সিদ্ধান্ত ভুল ছিল৷ ফল-মূল এবং শাক-সবজি ফরমালিন দিয়ে সংরক্ষণ করা যায় না৷ আর সংরক্ষণের কোনো প্রমাণও পাওয়া যায়নি, যা হয়েছে তা ভ্রান্তি ছাড়া আর কিছুই নয়৷''

তিনি বলেনন, ‘‘ফল মূল, শাক-সবজি এগুলো হলো ফাইবার৷ এখানে   ফরমালিন দেয়ার কোনো সুযোগই নেই৷ কেউ যদি না বুঝে দেয়ও, তাহলেও কোনো কাজে আসবে না৷ সংরক্ষণে কোনো ভূমিকা রাখবে না৷ কারণ, এখানে কোনো প্রোটিন নেই৷ আমাদের দেশের মানুষের মধ্যে ব্যাপকভাবে ধারণা যে, ফল-মূল, শাক-সবজিতে ফরমালিন দেয়া হয়৷ এটা দুর্ভাগ্যজনক৷''

তিান বলেন, ‘‘আমদানি করা আপেলে এক ধরনের এডিবল প্যারাজিন দেয়া হয়৷ এটা খাওয়ার যোগ্য৷ আমরা আপেল খাওয়ার পর এটা আবার একইভাবে বেরিয়ে আসবে৷ ফল-মূলে ৪০ ভাগ পানি থাকে৷ প্রতিদিন ওজন কমে ৫ থেকে ১০ গ্রাম৷ এখন একটি আপেলের প্রতিদিন যদি ৫ গ্রাম ওজন কমে তাহলে নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, ব্রাজিল থেকে আপেল আসতে সময় লাগে ২১ দিন, আসতে আসতেই হাড্ডিসার হয়ে যাবে৷ কেউ কিনবে না৷ আপনি-আমি যে আপেল খাই, অ্যামেরিকার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পও সেই একই আপেল খান৷ বিদেশে গেলে একটা আপেল , একটা মালটা নিয়ে আসবেন দেড় বছরে কিছু হবে না৷ এটা হলো সায়েন্স৷ এটা এডিবল প্যারাসিন দিয়ে করা হয়৷ এখন ফলের খোসা দিয়ে কোটিং তৈরি করা হয়৷ আবার স্টিকার বের হয়েছে, যা ফলের ওপরে লাগানো থাকে, ওই রকম স্টিকার, যা দিয়ে আমের লাইফ দুই সপ্তাহ বাড়ানো যায়৷ এখানে বিভ্রান্ত হওয়ার কোনো সুযোগ নেই৷'' 

তবে আগাম আম প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘আমের একটি ক্যালেন্ডার আছে৷ তাই ২০ থেকে ২৫ মে-র আগে আম খাওয়া ঠিক নয়৷ আগাম পেড়ে ফেলা আম কার্বাইড দিয়ে পাকানো হয়৷ সরকারের উচিত হবে মার্চ-এপ্রিলে যে আম  আমদানি হয়, তা বন্ধ করা৷ দুই মাস এলসি বন্ধ রাখা৷ কারণ, সেগুলো শতভাগ কার্বাইড দিয়ে পাকানো হয়৷''

তিনি আরো বলেন, ‘‘আঙুর নিয়েও আমাদের  এখানে একটা ভুল ধারণা আছে৷ দেখবেন, আঙুরের ওপর সাদা সাদা পাউডার৷ অনেক মানুষই মনে করে এটা কীটনাশক৷ কিন্তু আসলে তা নয়৷ এটা এক ধরনের ন্যাচারাল কোটিং৷ এটা ওয়েট লস থেকে রক্ষা করে৷ পোকা -মাকড়ের আক্রমণ থেকেও রক্ষা করে৷''

তিনি জানান, ‘‘আমের মুকুল বা গুটি আমে যে কীটনাশক দেয়া হয়, তা এখন ১৫-২০ দিনের বেশি থাকে না৷ তাই আতঙ্কের কিছু নেই৷''

ফরমালিন টেস্টের পদ্ধতি এবং কীট নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি৷ তিনি বলেন, ‘‘ফরমালিন টেস্টের নামে যেসব কিট এখানে ব্যবহার করা হয়েছিল, ওই কিটগুলো ঠিক ছিল না৷ সেটা তখন বলায় বেনজীর আহমেদ (ডিএমপি'র তখনকার কমিশনার) আমাকে অ্যারেস্ট করতে চেয়েছিল৷ কিন্তু আদালতের নির্দেশে অ্যামেরিকায় পরীক্ষা করে এখন প্রমাণ হয়েছে ওই কীটগুলো ঠিক ছিল না৷''

তিনি বলেন, ‘‘যে মাছ পানিতে ভিজিয়ে রাখা হয়, যেমন মলা, কাচকি মাছে এক সময় দশমিক তিন থেকে পাঁচ ভাগ ফরমালিন কেউ কেউ সময় সময় ব্যাবহার করতো৷ ফরমালিনের এমন ঝঁঝালো গন্ধ, যা বেশি ব্যবহার করা যায় না৷ এটা ধুয়ে ফেললে আর থাকে না৷ তবে  এটা এখন আর দেয়াই হয় না৷''

তাঁর মতে , ‘‘আমরা আসলে ফরমালিন আতঙ্কে ভুগছি৷ এটা থেকে আমাদের বেরিয়ে আসতে হবে৷ আমাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ করার ক্ষমতা তৈরি করে ফল-মূল, শাক সবজি৷ এখন আমরা আতঙ্কে তা খাওয়া ছেড়ে দিচ্ছি৷ এটা আমাদের অনেক বড় ক্ষতি করছে৷''

তিনি আরো বলেন, ‘‘ফরমালিন হলো হাইলি ভোল্যাটাইল এবং হাইলি সোলিবল৷ ভোল্যাটাইল মানে হলো উদ্বায়ী৷ একটি আম যদি  ফরমালিনে চুবানো হয়, তাহলে আমটা তোলার পর দ্রুত ফরমালিন উড়ে যাবে৷ আর  পানিতে দিলে খুব দ্রুত এটা দ্রবীভূত হয়ে যাবে৷ আসলে ফল-মূল, শাকসবজি সংরক্ষণে এর কোনো ভূমিকা নেই৷''
 


আপনার মতামত লিখুন :
বিশেষ প্রতিবেদন এর আরও খবর

আরো পড়ুন
চামড়ার বাজারে ধস ও বাংলাদেশের সিন্ডিকেট উপাখ্যান

চামড়ার বাজারে ধস ও বাংলাদেশের সিন্ডিকেট উপাখ্যান

বাংলাদেশের তৃতীয় প্রধান গুরুত্বপূর্ণ রফতানি পণ্য কাঁচা চামড়ার বাজার আজ…

দক্ষিণ ছাতকের অবহেলিত মানুষের কিছু দাবি

দক্ষিণ ছাতকের অবহেলিত মানুষের কিছু দাবি

সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলার ভাত গাঁও ইউনিয়নের অবহেলিত কয়েকটি এলাকার…

শোক দিবস উপল‌ক্ষ্যে ফ্রান্স আওয়ামীলীগের আলোচনা সভা অনূ‌ষ্টিত

শোক দিবস উপল‌ক্ষ্যে ফ্রান্স আওয়ামীলীগের আলোচনা সভা অনূ‌ষ্টিত

বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে ১৫ই আগস্ট বৃহস্পতিবার…

ভারতের সবচেয়ে বড় এবং আধুনিক কসাইখানার মালিকও হিন্দু

ভারতের সবচেয়ে বড় এবং আধুনিক কসাইখানার মালিকও হিন্দু

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সংস্থা কৃষি ও প্রক্রিয়াজাত খাদ্যপণ্য…

বাহুবলে হামিদিয়া হলিচাইল্ড একাডেমিতে জাতীয় শোক দিবস উদযাপন

বাহুবলে হামিদিয়া হলিচাইল্ড একাডেমিতে জাতীয় শোক দিবস উদযাপন

সারা দেশের ন্যায় হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলার হামিদ নগরে অবস্থিত,হামিদিয়া হলি…

নয়ন বন্ডের বাসায় চুরি!

নয়ন বন্ডের বাসায় চুরি!

বরগুনায় রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান আসামি পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’…

ভারত-পাকিস্তান সীমান্তে গোলাগুলি, নিহত ৮

ভারত-পাকিস্তান সীমান্তে গোলাগুলি, নিহত ৮

ভারত-পাকিস্তান সীমান্তের নিয়ন্ত্রণরেখায় (লাইন অব কন্ট্রোল) গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে…

ধর্ষণ মামলা তুলে না নেওয়ায় মাদ্রাসাছাত্রীকে ফের গণধর্ষণ

ধর্ষণ মামলা তুলে না নেওয়ায় মাদ্রাসাছাত্রীকে ফের গণধর্ষণ

ধর্ষণচেষ্টার মামলা তুলে না নেওয়ায় চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলায় বাবা-মাকে মারধর…