টাইম টিউন ডেস্ক
প্রকাশিত:
০৯ মে, ২০১৯ ০৫:৫৩ পিএম


বিশ্বব্যাংক থেকে ১৬ কোটি ডলার অনুদান আসছে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য


বিশ্বব্যাংক থেকে ১৬ কোটি ডলার অনুদান আসছে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য

জরুরি ভিত্তিতে রোহিঙ্গা সংকট মোকাবেলায় মাল্টিসেক্টর সহায়তা নামের প্রকল্পের আওতায় ব্যয় করতে রোহিঙ্গাদের জন্য সাড়ে ১৬ কোটি ডলার বা ১ হাজার ৩৮২ কোটি ২৯ লাখ টাকা অনুদান দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক। এ লক্ষ্যে বুধবার একটি অনুদান চুক্তি সই হয়।

বুধবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলনকক্ষে চুক্তিতে সই করেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব মনোয়ার আহমেদ এবং বিশ্বব্যাংকের ঢাকা অফিসের ভারপ্রাপ্ত কান্ট্রি ডিরেক্টর ড্যান ড্যান চ্যান।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে জানানো হয়, রোহিঙ্গাদের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা সৃষ্টির জন্য ৫০ কোটি ডলার বা প্রায় ৪ হাজার ১৫০ কোটি টাকা অনুদান দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে বিশ্বব্যাংক। এর মধ্যে প্রথম পর্যায় ৫ কোটি ডলার, দ্বিতীয় পর্যায় আড়াই কোটি ডলার এবং তৃতীয় পর্যায়ে সাড়ে ১৬ কোটি ডলার অনুদান দিল সংস্থাটি। বাকি অর্থ পর্যায়ক্রমে দেয়া হবে।

মনোয়ার আহমেদ জানান, বাংলাদেশ ১৯৭৮-৭৯, ১৯৯১-৯২ এবং অক্টোবর ২০১৬-তে মিয়ানমার থেকে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়। ২০১৭ সালের আগস্ট মাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তার ভালোবাসা ও মানবিকতার কারণে নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের অনুপ্রবেশের জন্য আবারও সীমান্ত রেখা উন্মুক্ত করে দেন। মিয়ানমার থেকে জোরপূর্বক স্থানচ্যুত ১০ লাখের অধিক রোহিঙ্গার অনুপ্রবেশের ফলে বাংলাদেশের সার্বিক প্রবৃদ্ধি ও উন্নয়ন

প্রক্রিয়া ব্যাহত হচ্ছে, জলবায়ু ও পরিবেশ, জীববৈচিত্র্য ও স্থানীয় পর্যায়ের আর্থ-সামাজিক অবকাঠামোর ওপর ব্যাপক নেতিবাচক প্রভাব তৈরি হচ্ছে। এ জন্য তিনি রোহিঙ্গা সমস্যার একটি চিরস্থায়ী সমাধানের পথ খুঁজে বের করার জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি অনুরোধ জানান।

ড্যান ড্যান চ্যান বলেন, রোহিঙ্গাদের জন্য সহায়তা করতে পেরে আমরা আনন্দিত। দুই বছর আগে সহিংসতার শিকার হয়ে মিয়ানমার থেকে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী বাংলাদেশ আসে। বাংলাদেশ তাদের গ্রহণ করেছে। এটা অত্যন্ত প্রশংসীয়। রোহিঙ্গা এবং স্থানীয় জনগোষ্ঠীর সহায়তার জন্য প্রস্তাবিত প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হবে।

চুক্তি অনুষ্ঠানে আরও জানানো হয়, এ প্রকল্পের আওতায় স্থানচ্যুত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর মৌলিক পরিষেবা দিতে প্রবেশাধিকার এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও সামাজিক সুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য সরকারের প্রচলিত দুর্যোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করা হবে। এ প্রকল্পের মাধ্যমে পানি সরবরাহ, স্যানিটেশন, রাস্তা নির্মাণ, সড়কবাতি ও বজ -নিরোধক ব্যবস্থা স্থাপন, প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় সক্ষম বহুমুখী আশ্রয় কেন্দ্র নির্মাণ, লিঙ্গ বৈষম্য দূরীকরণ এবং সরকারের দীর্ঘ মেয়াদি দুর্যোগ মোকাবেলার সক্ষমতা বৃদ্ধির ব্যবস্থা নেয়া হবে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর ও স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর এ প্রকল্পটি বাস্তবায়নে কাজ করবে।


আপনার মতামত লিখুন :
বাংলাদেশ এর আরও খবর

আরো পড়ুন
চামড়ার বাজারে ধস ও বাংলাদেশের সিন্ডিকেট উপাখ্যান

চামড়ার বাজারে ধস ও বাংলাদেশের সিন্ডিকেট উপাখ্যান

বাংলাদেশের তৃতীয় প্রধান গুরুত্বপূর্ণ রফতানি পণ্য কাঁচা চামড়ার বাজার আজ…

দক্ষিণ ছাতকের অবহেলিত মানুষের কিছু দাবি

দক্ষিণ ছাতকের অবহেলিত মানুষের কিছু দাবি

সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলার ভাত গাঁও ইউনিয়নের অবহেলিত কয়েকটি এলাকার…

শোক দিবস উপল‌ক্ষ্যে ফ্রান্স আওয়ামীলীগের আলোচনা সভা অনূ‌ষ্টিত

শোক দিবস উপল‌ক্ষ্যে ফ্রান্স আওয়ামীলীগের আলোচনা সভা অনূ‌ষ্টিত

বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে ১৫ই আগস্ট বৃহস্পতিবার…

ভারতের সবচেয়ে বড় এবং আধুনিক কসাইখানার মালিকও হিন্দু

ভারতের সবচেয়ে বড় এবং আধুনিক কসাইখানার মালিকও হিন্দু

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সংস্থা কৃষি ও প্রক্রিয়াজাত খাদ্যপণ্য…

বাহুবলে হামিদিয়া হলিচাইল্ড একাডেমিতে জাতীয় শোক দিবস উদযাপন

বাহুবলে হামিদিয়া হলিচাইল্ড একাডেমিতে জাতীয় শোক দিবস উদযাপন

সারা দেশের ন্যায় হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলার হামিদ নগরে অবস্থিত,হামিদিয়া হলি…

নয়ন বন্ডের বাসায় চুরি!

নয়ন বন্ডের বাসায় চুরি!

বরগুনায় রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান আসামি পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’…

ভারত-পাকিস্তান সীমান্তে গোলাগুলি, নিহত ৮

ভারত-পাকিস্তান সীমান্তে গোলাগুলি, নিহত ৮

ভারত-পাকিস্তান সীমান্তের নিয়ন্ত্রণরেখায় (লাইন অব কন্ট্রোল) গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে…

ধর্ষণ মামলা তুলে না নেওয়ায় মাদ্রাসাছাত্রীকে ফের গণধর্ষণ

ধর্ষণ মামলা তুলে না নেওয়ায় মাদ্রাসাছাত্রীকে ফের গণধর্ষণ

ধর্ষণচেষ্টার মামলা তুলে না নেওয়ায় চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলায় বাবা-মাকে মারধর…