টাইম টিউন ডেস্ক
প্রকাশিত:
২৯ জানুয়ারী, ২০২০ ০৭:২১ পিএম


লিবিয়া থেকে দেশে ১৪৮ বাংলাদেশি অভিবাসী


লিবিয়া থেকে দেশে ১৪৮ বাংলাদেশি অভিবাসী

লিবিয়া থেকে ১৪৮ জন বাংলাদেশি অভিবাসী দেশে ফিরেছেন। দেশে ফিরতে তাদের সাহায্য করেছে জাতিসংঘের অভিবাসন সংস্থা আইওএম।

সংস্থাটি ভলান্টারি হিউম্যানিটারিয়ান রিটার্ন (ভিএইচআর) কর্মসূচির মাধ্যমে ওই বাংলাদেশিদের দেশে ফিরিয়ে আনে। ফিরে আসা বাংলাদেশিদের মধ্যে যুদ্ধে আহত, সমুদ্র পথে ইউরোপ যেতে ব্যর্থ এবং লিবিয়ার জেলে বন্দি থাকা অভিবাসীরা রয়েছেন।

বুধবার (২৯ জানুয়ারি) দুপুরে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আইওএমের ভাড়া করা একটি বিশেষ প্লেনে তারা দেশে ফেরেন। এর আগে মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) লিবিয়ার মিসারত বিমানবন্দর থেকে প্লেনটি রওয়ানা দেয়।

লিবিয়া থেকে দেশে ফিরেছেন ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুরের মো. আকবর। তিনি গ্রামের দালাল ধরে চার বছর আগে লিবিয়ায় গিয়েছিলেন পারিবারের ভাগ্য বদলাতে। বেতন ছিল খুবই সামান্য। কোনোমতে নিজে চলতে পারতেন। যে কারখনায় কাজ করতেন হঠাৎ সেখানে বিমান হামলায় ৪ বাংলাদেশিসহ ১৩ জন মারা যায়।

আকবর বলেন, বিমান হামলার পর মনে হলো অল্পের জন্য জীবনটা বাঁচলো। সিদ্ধান্ত নিলাম দেশে ফিরে আসবো। এরপর লিবিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাস হয়ে আইওএমের সঙ্গে যোগাযোগ করি। দেশে ফেরার আগ্রহ প্রকাশ করি।

আইওএম বাংলাদেশের চীফ আব মিশন গিওগি গিগাওরি বলনে, লিবিয়ার প্রতিকূল অবস্থা অব্যাহত থাকায় বাংলাদেশিদের সুরক্ষা ও সহায়তা দিতে সর্বদা আমরা তৎপর। যারা ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে তাদের তাৎক্ষণিক সব ধরনের সহযোগিতা নিশ্চিত করছি আমরা। একইসঙ্গে ফিরে আসা অভিবাসীদের র্দীঘমেয়াদী সহযোগিতাও করবো আমরা।

আইওএম জানায়, দেশে আসা ৮ জন শারীরিকভাবে অসুস্থ। অসুস্থ ব্যক্তিদের নিবিড়ভাবে স্বাস্থ্যসেবা দেওয়া হয়েছে এবং চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তির জন্য সহায়তা করা হয়েছে। এছাড়া আইওএম লিবিয়া থেকে ফিরে আসা অভিবাসীদের মানসিক ও সামাজিক সেবা, তৎক্ষণিক সেবা, ফিরে আসার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র তৈরি করা, স্বাস্থ্য পরীক্ষা এবং বাংলাদশে সরকারের দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করতে সহয়তা করেছে। ঢাকায় পৌঁছানোর পর বিমানবন্দরে আইওএম বাংলাদশে-এর পক্ষ থেকে বাড়ি ফিরতে প্রত্যেককে ৪ হাজার ৭৩০ টাকা, খাবার, স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও মানসিক সেবা দেওয়া হয়েছে। আগামীতে এই অভিবাসীদের অর্থনৈতিক সহযোগিতাও করবে আইওএম, যেন তারা বাংলাদেশে আয় করে জীবন চালাতে পারে।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের অর্থায়নে বাংলদেশ সরকার ও লিবিয়া কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় ২০১৫ সাল থেকে এখন পর্যন্ত ১ হাজার ৪০০-এর বেশি বাংলাদেশিদের দেশে ফিরতে সহযোগিতা করছে আইওএম। বিশ্বব্যাপি ভিএইচআর প্রোগ্রামটির সহযোগিতায় ঝুঁকিপূর্ণ অভিবাসীদের প্রয়োজনীয় সুরক্ষা ও সহায়তা দিয়ে থাকে জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম)।


আপনার মতামত লিখুন :
বাংলাদেশ এর আরও খবর

আরো পড়ুন
চবি প্রশাসনকে নির্দিষ্ট চাঁদা দিয়েই রাস্তা ব্যবহার করছি- মোঃ হানিফ

চবি প্রশাসনকে নির্দিষ্ট চাঁদা দিয়েই রাস্তা ব্যবহার করছি- মোঃ হানিফ

ছোটবেলা থেকেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথে হাঁটতেছি। যেখানেই গরীব…

ভূমিহীন, গৃহহীনদের ঘর তৈরি করে দেবো: প্রধানমন্ত্রী

ভূমিহীন, গৃহহীনদের ঘর তৈরি করে দেবো: প্রধানমন্ত্রী

গ্রামে গ্রামে গৃহহীনদের বিষয়ে খোঁজ নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী…

মেসি মেসি মেসি এবং মেসি!

মেসি মেসি মেসি এবং মেসি!

কিছুদিন থেকেই নানান বিতর্কে জর্জরিত বার্সেলোনা। শুরুতে ক্লাবের ক্রীড়া পরিচালক…

​​​​​​​​​​​ফ্রান্স প্রবাসী বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন

​​​​​​​​​​​ফ্রান্স প্রবাসী বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে দেশের পাশাপাশি বিশ্বের বিভিন্ন দেশে পালিত…

বাহুবলে ৫ জুয়াড়ি গ্রেফতার; জুয়াড়িদের ১০ হাজার টাকা জরিমানা

বাহুবলে ৫ জুয়াড়ি গ্রেফতার; জুয়াড়িদের ১০ হাজার টাকা জরিমানা

হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলার দ্বিগাম্বর এলাকায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে ৭ জুয়াড়িকে…

দক্ষিণ আফ্রিকায় যাচ্ছেন মিজানুর রহমান আজহারী

দক্ষিণ আফ্রিকায় যাচ্ছেন মিজানুর রহমান আজহারী

আলোচিত ইসলামিক স্কলার ও তরুন প্রজন্মের আইডল মিজানুর রহমান আজহারী…

জয়সুরিয়া-গেইলদের কাতারে মুশফিকুর রহিম

জয়সুরিয়া-গেইলদের কাতারে মুশফিকুর রহিম

টেস্টে দুটি ডাবল সেঞ্চুরি করে আগেই বাংলাদেশের হয়ে রেকর্ড গড়েছিলেন…

তুমুল সংঘর্ষের মধ্যেই দিল্লিতে ট্রাম্প: নিহত ৭

তুমুল সংঘর্ষের মধ্যেই দিল্লিতে ট্রাম্প: নিহত ৭

ভারতে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) কেন্দ্র করে বিক্ষোভে চরম সহিংস…