আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত:
০৮ জানুয়ারী, ২০২০ ০৭:২৯ এএম


অবশেষে ফাঁসি কার্যকর হচ্ছে ধর্ষকদের


অবশেষে ফাঁসি কার্যকর হচ্ছে ধর্ষকদের

নির্ভয়াকে ধর্ষণ করা চার ধর্ষক। ছবি : ফাইল ফটো


দিল্লিতে ২০১২ সালে চলন্ত বাসে এক শিক্ষার্থীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে অভিযুক্ত চারজনের মৃত্যু পরোয়ানা জারি করেছে ভারতের একটি আদালত।

পরোয়ানা অনুযায়ী ২২ জানুয়ারি স্থানীয় সময় সকাল ৭টায় অক্ষয় ঠাকুর, বিনয় শর্মা, পবন গুপ্ত ও মুকেশ সিংয়ের মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের সময় নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

তিহার জেলের ভেতর একই সময়ে চারজনের ফাঁসি কার্যকরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানিয়েছে তারা।

২০১২ সালের ১৬ ডিসেম্বর রাতে ধর্ষণের শিকার ২৩ বছর বয়সী ওই শিক্ষার্থী চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৩ দিন পর মারা যায়। এ নিয়ে ভারত ও বিশ্বজুড়ে ব্যাপক আন্দোলন শুরু হয়।

দ্রুত বিচার আইনে ২০১৩ সালেই অভিযুক্ত এ চারজনের মৃত্যদণ্ডের রায় হয়েছিল। মৃত্যু পরোয়ানা জারি হওয়ায় এখন তাদের আইনজীবীদের হাতে বাকি আইনি লড়াইয়ের জন্য ১৪ দিন সময় থাকল।

ভারতের আইন অনুযায়ী, সুপ্রিম কোর্টে চূড়ান্ত আবেদন এবং রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমাপ্রার্থনার আবেদন খারিজ হওয়ার আগ পর্যন্ত কারও মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা যায় না।

মঙ্গলবারের শুনানিতে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আদালতের কাছে মৃত্যু পরোয়ানা জারির আবেদন করেন। তিনি বলেন, সাজা কার্যকরের প্রক্রিয়া দীর্ঘায়িত করার কৌশল হিসেবেই অভিযুক্তরা সুপ্রিম কোর্ট বা রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন করছে না।

আদালতের মৃত্যু পরোয়ানাকে স্বাগত জানিয়েছেন নির্ভয়ার মা। 

“এ রায় বিচারব্যবস্থার ওপর মানুষের আস্থা ফেরাবে। আমার মেয়ে বিচার পাবে, এ দেশের মেয়েরা বিচার পাবে,” গণমাধ্যমকে তিনি এমনটাই বলেছেন।

নির্ভয়াকাণ্ডে মোট ৬জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। এর মধ্যে ২০১৩ সালের মার্চে জেলের ভেতর রাম সিং নামে এক সন্দেহভাজনের মৃতদেহ পাওয়া যায়। সন্দেহভাজন অপ্রাপ্তবয়স্ক এক বালক ৩ বছর সংশোধনাগারে থাকার পর ২০১৫ সালে ছাড়া পায়।

ভারতে এর আগে ২০০৪ সালে চারজনের ফাঁসি হয়েছিল। দেশটিতে সর্বশেষ মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হয়েছিল ২০১৫ সালে, ইয়াকুব মেমনের। মেমন ১৯৯৩ সালের মুম্বাই বোমা হামলায় অর্থায়নের অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হয়েছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :
আন্তর্জাতিক এর আরও খবর

আরো পড়ুন
তারেক রহমানের প্রচেষ্টায় কৃত্রিম পা পেলো চবি শিক্ষার্থী রবি

তারেক রহমানের প্রচেষ্টায় কৃত্রিম পা পেলো চবি শিক্ষার্থী রবি

২০১৮ সালের ৮ই আগস্ট চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাটল ট্রেনে দুর্ঘটনাবশত দু'পা…

দিরাই থানার নিখোঁজ কিশোর মোঃ রুহিত আহমদের সন্ধান চায় পরিবার

দিরাই থানার নিখোঁজ কিশোর মোঃ রুহিত আহমদের সন্ধান চায় পরিবার

মোঃ রুহিত আহমদ ফয়জল নামে এক কিশোর হারিয়ে গেছে। তার…

দোয়ারাবাজারে জমি দখল করে সরকারী ঘর নির্মান করলেন আ লীগ নেতা

দোয়ারাবাজারে জমি দখল করে সরকারী ঘর নির্মান করলেন আ" লীগ নেতা

দোয়ারাবাজারে অন্যের জমি দখর করে প্রধান মন্ত্রীর আশ্রয়ণ- কর্মসুচীর আওতায়…

অবৈধ সম্পদের পাহাড় সেই ওসি প্রদীপের,অস্ট্রেলিয়ায় রয়েছে বাড়ি!

অবৈধ সম্পদের পাহাড় সেই ওসি প্রদীপের,অস্ট্রেলিয়ায় রয়েছে বাড়ি!

চাকরিজীবনের মাত্র ২৪ বছরেই টেকনাফের সমালোচিত সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার…

সবার পাঠশালা রোপণ করল ৫ হাজার গাছ

সবার পাঠশালা রোপণ করল ৫ হাজার গাছ

করোনা দূর্যোগকালিন অবসরের সময়কে ভালো কাজের সাথে যুক্ত থেকে, করোনা…

শেরপুর জেলা জবিয়ান ফোরামের যাত্রা শুরু

শেরপুর জেলা জবিয়ান ফোরামের যাত্রা শুরু

বাংলাদেশের অন্যতম বিদ্যাপিঠ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়। পুরান ঢাকার বুকে মাথা উচিয়ে…

মাধবপুরে ৩৭৮ কেজি ভারতীয় চা পাতা সহ আটক ২

মাধবপুরে ৩৭৮ কেজি ভারতীয় চা পাতা সহ আটক ২

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী তেলিয়াপাড়া চা বাগান থেকে ভারতীয় চা…

এবার হচ্ছে না পিইসি ও জেএসসি পরীক্ষা

এবার হচ্ছে না পিইসি ও জেএসসি পরীক্ষা

করোনা পরিস্থিতির কারণে চলতি বছর প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) ও…